April 17, 2021, 12:19 pm
Headlines:
Civil Society urged PM to speak for “A Global Regime on Climate Displacement” in Leaders’ Summit on Climate Effective social dialogues key to recovery of labour market during COVID-19 : Experts কিংবদন্তী অভিনেত্রী কবরী চিরস্মরণীয়-বরণীয় : তথ্যমন্ত্রী মুম্বাই-এ ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উদ্‌যাপন কবরীর মৃত্যুতে মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীবর্গের শোক হেফাজত কোনোভাবেই ছাড় পাবে না : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী খুলনায় করোনাকালে কর্মহীনদের মাঝে খাদ্য সহায়তা কর্মসূচির উদ্বোধন করোনাকালে চলাচল নিয়ন্ত্রণে পুলিশের দায়িত্বপালন, কিছু অভিযোগ ও প্রাসঙ্গিক বক্তব্য সারাহ বেগম কবরী’র মৃত্যুতে পরিবেশ মন্ত্রী ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রীর শোক কিংবদন্তী অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরীর মৃত্যুতে স্পিকার ও সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রীর শোক জাপানে ঐতিহাসিক মুজিব নগর দিবস উদযাপন মুজিব নগর সরকারের শপথ গ্রহণের সুবর্ণজয়ন্তীতে স্মারক ডাকটিকেট অবমুক্ত  মুজিবনগর সরকারের চারশ টাকার চাকুরে জিয়ার বিএনপি ইতিহাসকে অস্বীকার করতে চায় : তথ্যমন্ত্রী কবরীর মৃত্যুতে তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রীর শোক খাবার পরিবেশনসহ স্বাস্থ্যবিধি ভঙ্গ করায় ১৩ মামলায় ৩৩ হাজারের অধিক জরিমানা ঢাদসিকের ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে ই-পোস্টার প্রকাশ ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসে প্রধানমন্ত্রীর বাণী  ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসে রাষ্ট্রপতির বাণী ঐতিহাসিক মুজিবনগর  দিবসের কর্মসূচি মুজিবনগর দিবসের চেতনা প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে বাঙালি জাতিকে অনুপ্রেরণা জোগাবে: মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তান্ডব ইসলামের উপর কালিমা লেপন করেছে : তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী

The Bangladesh Beyond
  • Published Time Thursday, April 1, 2021,
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তান্ডব ইসলামের উপর কালিমা লেপন করেছে : তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী
চট্টগ্রাম, ০১ এপ্রিল ২০২১:
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ দেশের বিভিন্নস্থানে যে তাণ্ডব চালানো হয়েছে, সেটি একটি সংগঠনের ব্যানারে হলেও সেটির সাথে যুক্ত হয়েছিল বিএনপি এবং জামায়াত। তারা মিলে এই ঘটনাগুলো ঘটিয়েছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তান্ডব ইসলামের উপর কালিমা লেপন করেছে। মন্ত্রী বলেন, তারা স্বপ্ন দেখে বাংলাদেশকে আফগানিস্তান বানানোর জন্য। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমন অজুহাত হিসেবে দাঁড় করিয়েছিল মাত্র। ইসলাম কখনো এগুলো সমর্থন করে না, এই অপশক্তিকে রুখতে হবে।
আজ বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) সন্ধ্যায় চট্টগ্রামে আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় মুজিব কর্ণার ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রিসার্চ সেন্টার ফর ইসলাম এন্ড ইন্টাররিলিজিয়াস ডায়ালগ (বিআরসিআইআইডি) এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রামের বোর্ড অব ট্রাস্টির চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী এমপি’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন খাদিজাতুল আনোয়ার সনি এমপি, উপাচার্য অধ্যাপক আনোয়ারুল আজিম আরিফ, ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য রিজিয়া রেজা চৌধুরী, ইসলামি আরবী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি আহসান উল্লাহ, প্রফেসর ড. ছালেহ জহুর, শাহরিয়ার জাহান প্রমূখ।
ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় যেভাবে নৈরাজ্য চালানো হয়েছে মানুষের ঘর-বাড়ি জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে। মানুষের সম্পদ জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে, ব্যক্তিগত গাড়ি জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে। অনেকে ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে গাড়ি কিনেছে। সেই গাড়ি জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে। ইসলামেতো কারো ব্যক্তিগত সম্পত্তি জ্বালিয়ে দেয়ার কথা বলে নাই। ইসলাম তো এটি কখনো সমর্থন করে না। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আগমনের সাথে ঋণ করে যে ব্যক্তি গাড়ি কিনেছে সেটির কি সম্পর্ক প্রশ্ন রেখে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী বলেন, আজকে ইসলামের কথা বলে যে অপকর্মগুলো করা হচ্ছে, আমাদের কৃষ্টি-সংস্কৃতির উপর আঘাত হানা হচ্ছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সুর সম্রাট আলাউদ্দিনের একাডেমি জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে। ভূমি অফিস জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের স্টেশনে হামলা করা হয়েছে।
তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জে সৌরভ নামক এক সাংবাদিককে কালেমা পড়তে বলা হয়েছে সে হিন্দু না মুসলমান। আরেক জায়গায় কাপড় খুলে দেখার চেষ্টা করা হয়েছে সে হিন্দু নাকি মুসলমান। এগুলো ১৯৭১ সালে হানাদার বাহিনী করেছে, আজকে এই কাজগুলো যারা করছে তারা হচ্ছে ১৯৭১ সালে হানাদার বাহিনীকে বাংলাদেশে গণহত্যা করার জন্য যারা সহায়তা করেছিল সেই অপশক্তির পরবর্তী প্রজন্ম বলে উল্লেখ করেন মন্ত্রী ।
ড. হাছান বলেন, একটি অপশক্তি আজকে বাংলাদেশকে আফগানিস্তান বানানোর স্বপ্ন দেখছে। এই অপশক্তির সহায়ক ছিল অতীতে যারা চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনার সাথে যুক্ত ছিল তারাও। এই বিশ্ববিদ্যালয়েও জগদ্দল পাথরের মতো এই অপশক্তি বাসা বেঁধেছিল। সেই অপশক্তির হাত থেকে এই বিশ্ববিদ্যালয়টি উদ্ধার করা হয়েছে। এই অপশক্তিকে রুখতে হবে।
তিনি বলেন, এই বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের সাথে কথা বলে জানতে পারলাম, বিশ্ববিদ্যালয়ের একাউন্টের টাকা কিছুদিন আগে হঠাৎ গায়েব হয়ে গেছে। আমি মনে করি বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্পদ কোথায় গেল এটির অনুসন্ধান হওয়া প্রয়োজন। একই সাথে সমগ্র পৃথিবী থেকে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য যে অনুদান এসেছে, সেই টাকা কারো ব্যক্তিগত কাজে এবং কোনো দলীয় কাজে ব্যবহৃত হয়েছে কিনা সেটা জনগণের স্বার্থে শিক্ষা মন্ত্রণালয়সহ অনুসন্ধান হওয়া প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেন তিনি।
প্রধান বক্তার বক্তব্যে শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, কোন রাজনৈতিক দল এই বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করে নাই। কোন রাজনৈতিক দলের সম্পদও নয় এটি। ইসলামিক শিক্ষায় জাতিকে যারা আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে নিয়ে যেতে চেয়েছিলেন। ধর্মীয় শিক্ষা, প্রযুক্তি শিক্ষা ও বিজ্ঞান শিক্ষাসহ সকল ধর্মের মানুষকে উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত করতে চেয়েছিলেন তাদের প্রচেষ্টায় এই বিশ্ববিদ্যালয় আজকে এখানে এসেছে। যে রাজনৈতিক দলের নিবন্ধন মহামান্য আদালত বাতিল করেছে। তাদের কিছু ব্যক্তি অপপ্রচার করে এটাকে নিজের পৈত্রিক সম্পত্তির মতন ব্যবহারের জন্য দখল করে রেখেছেন। এটা কখনো কাম্য হতে পারে না।
শিক্ষা উপমন্ত্রী বলেন, কাগজপত্র অনুসন্ধান করে দেখেছি চট্টগ্রাম এবং দেশ-বিদেশের অনেক অনুরাগী দানশীল ব্যক্তি এই বিশ্ববিদ্যালয়ে সব সময় অনুদান দিয়ে এই বিশ্ববিদ্যালয়টিকে আজকের এই পর্যায়ে এনেছে। তাদের উত্তরসূরিরা আজকে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্ব নিয়েছেন, এটি আমাদের জন্য গৌরবের বিষয় বলে তুলে ধরেন উপমন্ত্রী।

Social Medias

More News on this Topic
01779911004