April 13, 2021, 5:19 pm
Headlines:
রাশিয়ান বিশ্ববিদ্যালয় গুলির অনলাইন শিক্ষামূলক প্রদর্শনী ২১ এপ্রিল বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হবে মশার লার্ভার বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে: ঢাদসিক মেয়র  বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে ই-পোস্টার প্রকাশ সারা দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ২ লাখ ৩৭ হাজার ৩২৯ জনের ভ্যাকসিন গ্রহণ নিরবচ্ছিন্ন পানি সরবরাহে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরকে নির্দেশ স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর বিডা’র অনলাইন ওএসএস পোর্টালে যুক্ত হলো আরো ৫ টি নতুন সেবা আগামীকাল থেকে পবিত্র রমজান মাস গণনা শুরু ভুয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি নিলেন মমতাজ ১৩ এপ্রিল কোভিড-১৯ সংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদন সরকার সব সময় আপনাদের পাশে রয়েছে : প্রধানমন্ত্রী স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সকল প্রতিষ্ঠান খোলা রাখার নির্দেশ বাংলা নববর্ষে তথ্যমন্ত্রীর শুভেচ্ছা পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর বাণী  পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষ্যে রাষ্ট্রপতির বাণী বাংলা নববর্ষ উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর বাণী  বাংলা নববর্ষ উপলক্ষ্যে রাষ্ট্রপতির বাণী মৎস্য আহরণ নিষিদ্ধকালে জেলেদের জন্য ৩১ হাজার মেট্রিক টন ভিজিএফ চাল বরাদ্দ করোনা রোধে বিধিনিষেধ চলাকালে জরুরি প্রয়োজনে পুলিশের MOVEMENT PASS কোভিড-১৯ সংক্রমিত রোগীর ঢাকামুখী না হওয়ার পরামর্শ নওগাঁয় তিনটি উপজেলায় সেন্ট্রাল অক্সিজেন প্লান্টের উদ্বোধন করলেন খাদ্যমন্ত্রী

নীলফামারী লকডাউন

The Bangladesh Beyond
  • Published Time Tuesday, April 14, 2020,

প্রাণঘাতী করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে এবার নীলফামারী জেলাকে লকডাউন করা হয়েছে। জেলার ছয় উপজেলার প্রবেশপথে বসানো হয়েছে পুলিশের ১৪টি চেকপোস্ট। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আজাহারুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, গত ৯ এপ্রিল থেকে নীলফামারী অঘোষিত লকডাউনে ছিল। পরিস্থিতি মোকাবিলায় স্থানীয় প্রশাসনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মঙ্গলবার (১৪ এপ্রিল) দুপুর থেকে লকডাউন ঘোষণায় মাইকিং করা হচ্ছে।

তবে লকডাউনের মধ্যেও জেলায় অন্যান্য জেলা থেকে মানুষের প্রবেশ বাড়ছে। গত এক সপ্তাহে জেলায় ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুর থেকে এসেছেন এক হাজার ১৭৩ জন। এতে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকিতে পড়েছে নীলফামারীর ২০ লাখ মানুষ।

আইইডিসিআরের তথ্যমতে নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুরকে ডেঞ্জার জোন ঘোষণা করা হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকে জানান, ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুর থেকে অসংখ্য মানুষ উত্তরাঞ্চলের নীলফামারী জেলায় আসছেন। বিভিন্ন জেলায় পুলিশ ও সেনাবাহিনীর চেকপোস্ট থাকায় প্রধান সড়ক ব্যবহার না করে চোরাপথে ১৩-১৪ জন মিলে মিনিবাসে রাতের আঁধারে নিজ এলাকায় প্রবেশ করছেন তারা। বিষয়টি বুঝতে পেরে তাৎক্ষণিকভাবে জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগকে জানানো হচ্ছে।

বুধবার (১৪ এপ্রিল) দুপুরে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, জেলায় গত ডিসেম্বর থেকে বিদেশ ফেরত ব্যক্তির সংখ্যা ৩৪৫ জন। এরমধ্যে হোম কোয়ারেন্টিন শেষ করেছেন ৩৩৩ জন। তারা সবাই সুস্থ আছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন ১৫৮ জন।

এদিকে, জেলায় চার জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হওয়ায় তাদের নীলফামারী জেনারেল হাসপাতালে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। স্থানীয়ভাবে বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় এক হাজার ১৭৩ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।

সিভিল সার্জন ডা. রনজিৎ কুমার বর্মন জানান, এ পর্যন্ত ১৪২ জনের নমুনা সংগ্রহ করে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আর এ পর্যন্ত জেলায় চার জনের করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে।

উল্লেখ্য, গত ৭ এপ্রিল জেলার কিশোরগঞ্জ হাসপাতালে একজন চিকিৎসক করোনা শনাক্ত হলে হাসপাতালটি লকডাউন করা হয়। অপরদিকে, সৈয়দপুরে নারায়ণগঞ্জ থেকে আসা এক ব্যক্তির করোনা শনাক্ত হওয়ায় ওই গ্রামের ২০টি বাড়ি লকডাউন করা হয়। গত ১১ এপ্রিল ডিমলার বালাপাড়া ইউনিয়নের সুন্দর খাতা গ্রামের এক কিশোরের করোনা শনাক্ত হয়। ওই গ্রামের ১৪টি বাড়ি লকডাউন করা হয়। আবার গত ১৩ এপ্রিল জেলার জলঢাকা উপজেলার ধর্মপাল ইউনিয়নের মাঝাপাড়া গ্রামের এক যুবকের করোনা শনাক্ত হওয়া সেখানে ১৬টি বাড়ি লকডাউন করা হয়।

Social Medias

More News on this Topic
01779911004