March 5, 2021, 12:26 am
Headlines:
জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদ্‌যাপন উপলক্ষে দশ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালা প্রতিবেশী দেশগুলোর মধ্যকার সমস্যা আলোচনা ও সমঝোতার মাধ্যমে সমাধান করা উচিত :প্রধানমন্ত্রী ভারত যোগাযোগের ইস্যুটির ওপর সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য দিচ্ছে: জয়শংকর শাহজালালে ৪৫টি স্বর্ণের বার জব্দ করেছে কাস্টম হাউস:  গ্রেপ্তার ১ তরুণদের মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন তৈরিতে দক্ষ করতে পারলে বিলিয়ন ডলার অর্জন সম্ভব: আইসিটি প্রতিমন্ত্রী কারাগারে মৃত্যুর ঘটনায় আইন বাতিলের দাবি আইনহীনতারই নামান্তর: তথ্যমন্ত্রী ৪ মার্চ কোভিড-১৯ সংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদন  কোভিড-১৯ টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী এইচ টি ইমাম মনের দিক থেকে তরুণ ছিলেন: তথ্যমন্ত্রী কলিমুল্লাহর অভিযোগ অসত্য বানোয়াট ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত: শিক্ষা মন্ত্রণালয় বিজ্ঞানী গবেষকদের মানবকল্যাণে কাজ করার আহবান প্রধানমন্ত্রীর  কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নাগরিক শ্রদ্ধাঞ্জলি শেষে বনানী কবরস্থানে দাফন করা হবে এইচ টি ইমামের মরদেহ মুশতাক আহমেদের ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়া গেলে চূড়ান্ত তথ্য পাওয়া যাবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী BD need to take strategic preparation as LDC graduate with momentum: Research আমি শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির ষড়যন্ত্রের শিকার, রাজনীতির শিকার: কলিমুল্লাহ ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস. জয়শঙ্করের ঢাকা সফর আমাদের অগ্রযাত্রা কেউ থামিয়ে দিতে পারবে না: প্রধানমন্ত্রী এইচ টি ইমামে‘র মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী ভূমির অবক্ষয় রোধে সমন্বিতভাবে কাজ করছে সরকার: পরিবেশ মন্ত্রী ডিজিটাল ইকোনমি গড়তে স্টার্টআপরাই মূল চালিকাশক্তি হিসেবে ভূমিকা রাখছে: আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

কুয়াকাটার সৈকত ব্যবস্থাপনায় স্থানীয়দের সম্পৃক্ত করার দাবি পরিবেশকর্মীদের

The Bangladesh Beyond
  • Published Time Wednesday, January 6, 2021,

কুয়াকাটার পর্যটন সম্ভাবনা কাজে লাগাতে প্রয়োজন দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা:  মেরিন জার্নালিস্টস’র সিম্পোজিয়ামে বক্তারা

কুয়াকাটা, ৬ জানুয়ারি, ২০২১:
দেশের পর্যটন সম্ভাবনা কাজে লাগাতে প্রয়োজন দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা: দাবি পর্যটন ও পরিবেশকর্মীদের। কুয়াকাটার সৈকত ব্যবস্থাপনায় স্থানীয়দের সম্পৃক্ত করার দাবি তাদের।
পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় পর্যটন মোটেলের অডিটরিয়ামে মেরিন জার্নালিস্টস’ নেটওয়ার্ক আয়োজিত “উপকূলের পরিবেশ বিষয়ক” সিম্পোজিয়ামে বক্তারা এসব কথা বলেন। সমুদ্র বিষয়ক পরিবেশবাদী সংগঠন সেভ আওয়ার সি’এর মহাসচিব মুহাম্মদ আনোয়ারুল হকের সভাপতিত্বে এ মতবিনিয়ম সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন কুয়াকাটা পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র আনোয়ার হোসেন হাওলাদার। সভায় দেশের বিভিন্ন জাতীয় গণমাধ্যমের পরিবেশ ও পর্যটন বিষয়ক  সাংবাদিকরা পরিবেশ বিপর্যয় ও পর্যটন উন্নয়নের প্রতিবন্ধকতা নিয়ে নানা পরামর্শ তুলে ধরেন।
সভাপতির বক্তব্যে সেভ আওয়ার সি-এর মহাসচিব মুহাম্মদ আনোয়ারুল হক বলেন, করোনার সময় আমরা দেখেছি কক্সবাজারে ডলফিন দেখা গিয়েছিল। সেটা দেখতে করোনার মধ্যেও কক্সবাজার যাওয়ার চেষ্টা ছিল অনেকের। এটা প্রমাণ করে প্রাণী ও প্রাকৃতিক পরিবেশ পর্যটন কেন্দ্রের ভ্যালু বাড়ায়। কিন্তু আমরা পর্যটন করতে গিয়ে সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনার অভাবে সেই প্রাকৃতিক পরিবেশ নষ্ট করছি।
কক্সবাজারের তুলনায় কুয়াকাটায় এখনো প্রাকৃতিক পরিবেশ আছে বলে জানিয়ে এ পরিবেশবাদী নেতা আরো বলেন, কুয়াকাটার পর্যটন নিয়ে নতুন করে ভাবতে হবে। এজন্য কুয়াকাটা সৈকত এলাকায় প্লাস্টিক ব্যবহার নিষিদ্ধ করা, সৈকতে মোটরবাইক চলাচল বন্ধ করা ও সামুদ্রিক প্রাণী সংরক্ষণে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণেরও দাবি জানান তিনি। একইসঙ্গে কুয়াকাটার পর্যটন উন্নয়নে সবসময় সৈকত পরিচ্ছন্ন রাখা, সৈকত এলাকার টঙ দোকান তুলে নেয়া, পরিবেশ ট্যাক্স আদায়, পর্যটকদের হয়রানি বন্ধে ব্যবস্থা নেয়া ও কুয়াকাটায় বিমানবন্দর করার প্রস্তাবনা দেন সেভ আওয়ার সি-এর মহাসচিব।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে কুয়াকাটা পৌরসভার মেয়র আনোয়ার হোসেন হাওলাদার বলেন, কুয়াকাটাকে আধুনিক পর্যটন নগরী হিসেবে গড়ে তোলার স্বপ্ন নিয়ে আমি মেয়র হয়েছি। আমি স্বপ্ন বাস্তবায়নে সর্বোচ্চ চেষ্টা করবো। তবে সমস্যা হলো এ নগরের উন্নয়নের কোনো ক্ষমতাই মেয়রের হাতে নেই। মাস্টারপ্ল্যান তৈরির আগে এসব সমস্যার সমাধান করাও সম্ভব হবে বলে মনে হয় না।
নিজের উপকূল বিষয়ক সাংবাদিকতার অভিজ্ঞতা তুলে ধরে বাংলা ট্রিবিউনের প্রতিবেদক শাহেদ শফিক বলেন, বাংলাদেশের পুরো উপকূলের যেখানেই যাই না কেন সমুদ্রে প্লাস্টিক আবর্জনা দেখতে হচ্ছে। যা সমুদ্র প্রতিবেশকে ভয়াবহভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করলে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের কোনো তৎপরতা দেখা যায় না কোথাও। এছাড়া, নতুন নতুন চর জেগে উঠায় নতুন সম্ভানা তৈরি হচ্ছে বলেও জানান শাহেদ শফিক।
দ্য ডেইলি সানের সিনিয়র রিপোর্টার আনিসুল ইসলাম নূর বলের, বাংলাদেশের সৈকতগুলোর মতো বিশ্বের কোনো পর্যটন কেন্দ্রে এমন অব্যবস্থাপনা নেই। আমরা আমাদের সৈকতগুলোকে বিশ্বের কাছে ব্রান্ডিং করতে হলে আমাদের এখনি উদ্যোগ নিতে হবে। সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে পর্যটন নগরীগুলোকে ঢেলে সাজানোর দাবি জানান তিনি।
সময় টেলিভিশনের প্রতিবেদক কেফায়েত শাকিল তার পরিবেশ ও পর্যটন বিষয়ক নানা কাজের অভিজ্ঞতা তুলে ধরে বলেন, বিশ্বের সর্ববৃহৎ সমুদ্র সৈকতের কারণে কক্সবাজারের পরিচিতি বিশ্বজুড়ে। কিন্তু অপরিকল্পিত নগরায়ন, অনিয়ন্ত্রিত পর্যটন ও  প্লাস্টিক বর্জ্যের কারণে কক্সবাজার অপরিচ্ছন্ন নগরীতে পরিনত হয়েছে।  একই অবস্থা চলছে কুয়াকাটার ক্ষেত্রেও। কুয়াকাটাকেও এখনো কোনো পরিকল্পনায় সাজানো হয়নি,  সৈকত অপরিচ্ছন্ন থাকে, সৈকতকে ঘিরে বস্তির মতো টঙ ঘর গড়ে উঠছে যার কারণে সৌন্দর্য হারাচ্ছে এই স্থানটিও। সৈকতের যথাযথ দেখভালের অভাবে মানুষের মলমূত্রসহ নানা আবর্জনা পর্যটকের বিরক্তির কারণ হচ্ছে। দ্রুত উদ্যোগ না নিলে সম্ভাবনাময় এ স্থানটি জনপ্রিয়তা হারাবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
সিনিয়র সাংবাদিক শাহাদাৎ শপন বলেন, পদ্মা সেতু চালু হলে কুয়াকাটার জনপ্রিয়তা আরো বাড়বে।  কিন্তু তার আগেই কুয়াকাটাকে প্রস্তুতি নিতে হবে। এখনো চাইলে কুয়াকাটাকে ঢেলে সাজানো সম্ভব বলে মন্তব্য করে যত্রতত্র বাস না রেখে নির্দিষ্ট বাসস্ট্যান্ড তৈরি, আন্তর্জাতিক মানের হোটেল তৈরি,  ঝড়-ঝঞ্জা থেকে উপকূলবাসীকে রক্ষায় সুষ্ঠু পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়ন এবং বিচ মেনেজমেন্টক ব্যবস্থাকে শক্তভাবে নিয়ন্ত্রণ করার পরামর্শ দেন তিনি।
লতাচাপলি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বলেন, সমুদ্রের পানি আগে অনেক দূরে ছিল। কিন্তু বালু ক্ষয়ে ক্ষয়ে এখন সমুদ্র জনপদের দিকে এগিয়ে আসছে। বালু ক্ষয়ের কারণে বাঁধও ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় কুয়াকাটার মানুষ প্রতিনিয়ত আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে। কুয়াকাটার উপকূলবাসীকে নিরাপদ করতে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার দাবি জানান এ জনপ্রতিনিধি।
উপকূলের মানুষের জীবনযাত্রা ও পর্যটন তুলে ধরতে মেরিন জার্নালিস্টস নেটওয়ার্ক ও সেভ আওয়ার সি-এর উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে কুয়াকাটা প্রেস ক্লাবের সভাপতি নাসির উদ্দিন বিপ্লব বলেন, কুয়াকাটা বিশ্বের অন্যতম একটি সুন্দর সৈকত। সূর্যদয়, সূর্যাস্ত দেখার পাশাপাশি আশপাশের উপকূলীয় বনকে ঘিরে এর অনেক সম্ভাবনা থাকলেও সেভাবে তুলে ধরতে না পারায় এখনো এ সম্ভাবনা অধরাই রয়ে যাচ্ছে। তাই কুয়াকাটার পর্যটন সম্ভাবনা তুলে ধরতে সরকারের পাশাপাশি জাতীয় গণমাধ্যমগুলোকেও এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।
বিচ মেনেজমেন্ট কমিটিতে স্থানীয়দের কোনো অংশগ্রহণ নেই বলে জানিয়ে তিনি বলেন, বিচ মেনেজমেন্ট কমিটি চলে পটুয়াখালী থেকে। অথচ বিচ অবস্থিত কুয়াকাটায়। এতে বিচে কখন কি হচ্ছে না হচ্ছে কিছুই জানে না কমিটি। ফলে অব্যবস্থাপনাগুলো অব্যবস্থাপাই  রয়ে যাবে। তাই বিচ মেনেজমেন্ট কমিটিতে  ৫০ শতাযশ স্থানূীয়দের যুক্ত করাারও দাবি জানান মেয়র
এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন মেরিন জার্নালিস্টস নেটওয়ার্কের সদস্য শাহাদাৎ শপন, ইমাম হুসাইন  সোহেল, রেজাউল করিম,  ইকবাল ফরহাদ, তানভীর আহমেদ, কুয়াকা:টা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কাজী সাঈদ, উপকূলীয় মানব উন্নয়ন সংস্থার (সিকোডা) প্রধান নির্বাহী আনোয়ার হোসেন আনু, ওয়ার্ড কাউন্সিলর।
বাংলাদেশ পর্যটন সস্পদে পরিপূর্ণ। যাকে ঘিরে বিশ্বের বুকে নতুন করে মাথা তুলে দাঁড়ানোর সুযোগ রয়েছে এ দেশের। কিন্তু যথাযথ পরিকল্পনা না থাকা ও বাস্তবায়নে আন্তরিকতার অভাবে এসব সম্পদের অপব্যবহার হচ্ছে। নষ্ট হচ্ছে সম্ভাবনাময় পর্যটন সম্পদ। তাই পর্যটন সম্ভাবনা কাজে লাগাতে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণ ও তা বাস্তবায়নে সর্বোচ্চ আন্তরিত হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন পর্যটন ও পরিবেশকর্মীরা।

Social Medias

More News on this Topic
01779911004